Home Blog

কমেছে আদা-রসুনের

0

গত কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে অগাস্টের শুরু থেকেই চীন থেকে আমদানি করা রসুনের দাম বাড়তে থাকে। সেই সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়তে থাকে দেশীয় রসুন ও বিভিন্ন দেশ থেকে আমদানি করা আদার দাম।

চীন রসুন প্রতিকেজি ১২০ টাকা থেকে ধাপে ধাপে বাড়তে শুরু করে। গত প্রায় দুই মাস ধরেই পণ্যটি বিক্রি হচ্ছিল প্রতি কেজি ১৬০ টাকা থেকে ১৭০ টাকায়। একইভাবে বাড়তে থাকে আদার দামও। পণ্যটির নিয়মিত মূল্য ১০০ থেকে ১২০ টাকার মধ্যে ছিল। তবে একই সময় আদার দামও বেড়ে ১৬০ টাকা থেকে ১৮০ টাকার মধ্যে বিক্রি হচ্ছিল।

বৃহস্পতিবার কারওয়ান বাজারে মসলার পাইকারি বিক্রেতা জামিল হোসাইন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, পেঁয়াজ, রসুন, আদা এসব পণ্য আমদানি নির্ভর হওয়ার কারণে বিশ্ববাজার দামের উঠানামার প্রভাব দেশীয় বাজারে পড়ে। চীন থেকে দেশের চাহিদার অধিকংশ রসুন আসে। চীনে পণ্যটির দাম বেড়ে যাওয়ায় সম্প্রতি বাংলাদেশেও আমদানিকারকরা দাম বাড়িয়েছিলেন।

তবে গত প্রায় এক সপ্তাহ ধরে রসুনের দাম ব্যাপকহারে কমতে শুরু করেছে বলে জানান জামিল।

“গত তিন সপ্তাহ ধরে রসুন বিক্রি হচ্ছিল প্রতি কেজি ১৬০ টাকায়। তবে ৪/৫ দিন ধরে পণ্যটির দাম কমতে শুরু করেছে। একণ প্রতিকেজি রসুনের খুচরা মূল্য ১২০ টাকা। পাইকরি মূল্য ১১০ টাকা থেকে ১১৫ টাকার মধ্যে,” বলেন তিনি।

দর চড়ে যাওয়ায় মঙ্গলবার খোলাবাজারে পেঁয়াজ বিক্রি শুরু করেছে টিসিবি; সচিবালয়ের সামনের মতো ঢাকার পাঁচটি স্থানে ৪৫টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে এই পেঁয়াজ। ছবি:আব্দুল্লাহ আল মমীন

শুক্রবার মিরপুর বড়বাগে শাহীন জেনারেল স্টোরের বিক্রেতা শাহীন জানান, প্রায় এক সপ্তাহ ধরে চায়না রসুনের দাম কমতে শুরু করেছে। একইভাবে কমছে দেশীয় রসুন ও আদার দাম।

“বর্তমানে খুচরায় এককেজি রসুন বিক্রি হচ্ছে ১২০ টাকায়, আদা বিক্রি হচ্ছে ১২০ টাকা থেকে ১৩০ টাকায়, দেশীয় রসুনও এতোদিন প্রতিকেজি দেড়শ টাকায় বিক্রি হচ্ছিল, এখন দাম কমে বিক্রি হচ্ছে ১২০ টাকায়,” বলেন তিনি।

সরকরি বিপণন সংস্থা টিসিবির হিসাবে দেখা যায়, গত এক মাসে আমদানি করা রসুনের দাম কমেছে ২৩ শতাংশ এবং আদার দাম কমেছে ১৪ শতাংশ হারে।

নিত্যপণ্যের বাজারে দাম বাড়ার তালিকায় আছে ফার্মের ডিম ও ব্রয়লার মুরগির। চলতি সপ্তাহে প্রতি ডজন ডিম বিক্রি হচ্ছে ১১৫ টাকা থেকে ১২০ টাকায়। যা দুই সপ্তাহ আগে ছিল ১০৫ টাকা। ব্রয়লার মুরগির কেজি বিক্রি হচ্ছে ১৪০ টাকা থেকে ১৫০ টাকায়।

ব্রয়লার মুরগির দাম চলতি সপ্তাহে কেজিকে অন্তত ১০ টাকা করে বেড়েছে বলে বেশ কয়েকজন বিক্রেতা জানিয়েছেন।

এছাড়া শাক, সবজি, মাছ ও গরুর মাংস আগের দামেই বিক্রি হচ্ছে। গরুর মাংসের কেজি ৫৫০ টাকা, খাসির মাংস ৭০০ টাকা থেকে ৭৫০ টাকা। অধিকাংশ সবজির দাম প্রতিকেজি ৫০ টাকার বেশি। তবে দীর্ঘদিন ধরে কেজি ১৩০ টাকা থেকে ১৪০ টাকায় বিক্রি হওয়া নতুন মওসুমের সবজি সিমের দাম কিছুটা কমেছে। কেজি বিক্রি হচ্ছে ১১৫ টাকা থেকে ১২০ টাকায়।